ভালো কথা বলা, বিনয় অবলম্বন করাই কল্যাণকর

  • “নিস্প্রয়োজন কথা ও কাজ বর্জন মানুষের দীনদারীকে সৌন্দর্যমন্ডিত করে।” — [তিরমিযী]
  • “মুসলমান হচ্ছেন সেই ব্যক্তি, যার জিহবা ও হাত দ্বারা কোন মুসলমান কষ্ট পায় না। আর মুহাজির হচ্ছে সেই ব্যক্তি, যে আল্লাহর নিষিদ্ধ জিনিস থেকে হিজরত করে (অর্থাৎ তা বর্জন করে)।” [বুখারী ও মুসলিম]
  • “যে ব্যক্তি নিজের ক্রোধ সংবরণ করে আল্লাহ তাকে তার আযাব থেকে রক্ষা করবেন। আর যে ব্যক্তি জিহবাকে সংযত রাখে, আল্লাহ তার দোষত্রুটি গোপন করবেন”। — [তাবরানী ও আবু ইয়ালা]
  • “আল্লাহর স্মরণ ও তার সম্পর্কে কিছু বলা ছাড়া কথা বাড়িও না, কেননা আল্লাহর স্মরণ ও তার সম্পর্কে কিছু কথা বলা ছাড়া কথা বাড়ানো মনকে কঠিন বানিয়ে দেয়। মনে রেখো যার মন কঠিন, সেই আল্লাহর কাছ থেকে সবচেয়ে দূরে অবস্থিত” — [তিরমিযী, বায়হাকী]
  • “যে ব্যক্তি যা জানে, সে অনুসারে কাজ করে, নিজের প্রয়োজনের অতিরিক্ত সম্পদ দান করে এবং প্রয়োজনের অতিরিক্ত কথা বলা থেকে বিরত থাকে, তার জন্য সুসংবাদ”। — [তাবরানী]
  • “সৎকাজের আদেশ অসৎকাজ থেকে নিষেধ অথবা আল্লাহর স্মরণ সংবলিত কথা ছাড়া সমস্ত কথাই আদম সন্তানের জন্য ক্ষতিকর”।–[তিরমিযী, ইবনে মাজাহ, ইবনে আবিদ দুনিয়া]
  • “আল্লাহ তায়ালা কোমল চিত্ত। সবকিছুতে তিনি কোমলতাকে পছন্দ করেন।” –[বুখারী ও মুসলিম]

আত তারগীব ওয়াত তারহীব থেকে

Advertisements

One response to “ভালো কথা বলা, বিনয় অবলম্বন করাই কল্যাণকর

  1. শিক্ষনীয় পোস্ট, অনেক অনেক ধন্যবাদ সুন্দর পোস্ট এর জন্যে

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s