আব্দুল্লাহ ইবন মাসউদের জীবন সায়াহ্নের একটি ঘটনা


হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু উসমান (রা) এর খিলাফতকাল পর্যন্ত জীবিত ছিলেন। তিনি যখন অন্তিম রোগ শয্যায়, তখন উসমান (রা) একদিন তাকে দেখতে গেলেন। তিনি জিজ্ঞেস করলেনঃ

— আপনার অভিযোগ কীসের বিরুদ্ধে?
— আমার পাপের বিরুদ্ধে।

— আপনার চাওয়ার কিছু আছে কি?
— আমার রবের রহমত বা করুণা।

— বহুবছর যাবত আপনার ভাতা নিচ্ছেন না, তাকি আবার দেয়ার নির্দেশ দেব?
— আমার কোন প্রয়োজন নেই।

— আপনার মৃত্যুর পর আপনার কন্যাদের প্রয়োজনে আসবে।
— আপনি কি আমার কন্যাদের দারিদ্রের ব্যাপারে ভীত হচ্ছেন? আমি তো তাদেরকে নির্দেশ দিয়েছি, তারা যেন প্রত্যেক রাতে সূরা ওয়াকিয়া পাঠ করে। কারণ আমি রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে বলতে শুনেছিঃ “যে ব্যক্তি প্রত্যেক রাতে সূরা আল-ওয়াক্কিয়া পাঠ করবে, কখনো দারিদ্র তাকে স্পর্শ করবে না।”

দিনশেষে রাত্রি নেমে এলো, আব্দুল্লাহ ইবন মাসউদ তার রফীকে আলা-শ্রেষ্ঠতম বন্ধুর সাথে মিলিত হলেন। খলীফা উসমান তাঁর জানাযার নামায পড়ান এবং হযরত উসমান ইবন মাজউনে রাদিয়াল্লাহু আনহু এর পাশে তাঁকে সমাহিত করা হয়।

//

** উপরিউক্ত অংশটি আসহাবে রাসূলের জীবনকথা (প্রথম খন্ড) থেকে হুবহু উদ্ধৃত।

Advertisements

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s